Breaking News
Home / News Headlines (Bangla) / প্রলোভনে সপ্তম শ্রেণী স্কুলছাত্রীকে নিয়ে উধাও

প্রলোভনে সপ্তম শ্রেণী স্কুলছাত্রীকে নিয়ে উধাও

[অপরাধ] নওগাঁর বদলগাছীতে বিয়ের প্রলোভনে সপ্তম শ্রেণি পড়ুয়া এক স্কুলছাত্রীকে(১৪) নিয়ে পালিয়েছে এক মুদি দোকানদার। ১৫ দিন পর গত বৃহস্পতিবার(০১ অক্টোবর) গভীর রাতে তাদের ঢাকা থেকে উদ্ধার করে নিয়ে আসে বদলগাছী থানা পুলিশ।
এ ঘটনায় ঐ স্কুলছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে বদলগাছী থানাধীন বিলাশবাড়ী ইউপির কাশিমালা গ্রামের আনিছার রহমানের ছেলে আপনকে(৩১) আসামী করে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করে।



ভুক্তভোগীর পরিবার ও থানা সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন থেকে আসামী আপন ঐ স্কুলছাত্রীকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। গত ১৫ সেপ্টেম্বর রাত আনুমানিক ১১ টার দিকে ঐ স্কুলছাত্রী প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে বের হয়। এসময় আসামী আপন তাকে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে বাড়িতে নিয়ে ধর্ষণ করে। কয়েকবার ধর্ষণের পর ঐ স্কুলছাত্রী বিয়ের জন্য চাপ দিলে আসামী আপন অন্যত্র গিয়ে বিয়ে করবে বলে প্রথমে জয়পুরহাট জেলার পাঁচবিবি এলাকায় নিয়ে যায়। পরবর্তীতে ঢাকার দারুস সালাম এলাকায় নিয়ে গিয়ে স্বামী-স্ত্রীর পরিচয় দিয়ে বাসা ভাড়া নিয়ে বিভিন্ন সময় ধর্ষণ করতে থাকে।



এক পর্যায়ে ঐ স্কুলছাত্রী বিষয়টি বাড়ির মালিক দারুস সালাম থানাধীন বাগবাড়ী উত্তরপাড়া এলাকার সাহাব উদ্দিনকে জানায়। এরপর বাড়ির মালিক ঐ স্কুলছাত্রীর বাবাকে মোবাইল ফোনে তার মেয়ের পরিচয় ও ঠিকানা জানায়। স্কুলছাত্রীর বাবা বিষয়টি বদলগাছী থানা পুলিশকে জানালে থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা চৌধুরী জোবায়ের আহাম্মদ স্কুলছাত্রীকে উদ্ধারের জন্য তাৎক্ষণিক এসআই আরিফকে নির্দেশ দেন। এসআই আরিফ সঙ্গীয় ফোর্সসহ দারুস সালাম থানা পুলিশের সহযোগিতায় গত বৃহস্পতিবার(০১ অক্টোবর) আসামী আপন ও ঐ স্কুলছাত্রীকে উদ্ধার করে বদলগাছী থানায় নিয়ে আসে।



এ বিষয়ে বদলগাছী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা চৌধুরী জোবায়ের আহাম্মদ বলেন, দারুস সালাম থানা পুলিশের সহযোগিতায় আসামী আপন ও ঐ স্কুলছাত্রীকে উদ্ধার করে নিয়ে আসা হয়েছে। থানায় মামলা হয়েছে। দুজনকেই কোর্টে প্রেরণ করা হয়েছে।

আরো সংবাদ পড়ুন :

 

প্রতারণায় পুলিশের এসআই, নারীসহ ৫ জন আটক

error: Content is protected !!

Powered by themekiller.com